• শিরোনাম

    মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় মা ও বোনকে মারধর

    অগ্রবাণী ডেস্ক | মঙ্গলবার, ১৪ মার্চ ২০১৭

    মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় মা ও বোনকে মারধর

    বাগেরহাটে আসমা খাতুন নামে এক কলেজ ছাত্রীকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় তার বোন ও মাকে মারপিট করে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। আহতদের উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় বাগেরহাট সদর উপজেলার গোটাপাড়া ইউনিয়নের কান্দাপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। তবে পুলিশ এখনো ওই দুর্বৃত্তদের গ্রেফতার করতে পারেনি।

    আহতরা হলেন, আসমা খাতুনের মা নুরুনাহার বেগম (৪০) ও তার স্কুল পড়ুয়া ছোট বোন নাঈমা ফেরদৌসি সুমি। আসমা খাতুন স্থানীয় কান্দাপাড়া এন এন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী এবং কান্দাপাড়া গ্রামের মো. ওসমান আলীর মেয়ে।

    আসমার মা নুরুনাহার বেগম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় অভিযোগ করেন, আমার বড় মেয়ে বাগেরহাট সরকারি পিসি কলেজে পড়ালেখা করে। এবছর সে এইচএসসি পরীক্ষার্থী। বেশকিছুদিন ধরে কলেজে যাওয়া আসার পথে স্থানীয় রবিউল ইসলাম নামে এক যুবক আমার মেয়েকে উত্যক্ত করে আসছিল। বারবার নিষেধ করা সত্ত্বেও সে একই কাজ করে যাচ্ছিল। সম্প্রতি আমি থানায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। পরে সে আর আমার মেয়েকে উত্যক্ত করবে না বলে প্রতিশ্রুতি দিলে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার অনুরোধে আমি তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে নেই। জেল থেকে ছাড়া পেয়ে হঠাৎ সোমবার সন্ধ্যায় ওই ছেলে ও তার পরিবারের সদস্যরা আমার ছোট মেয়েকে লাঠি দিয়ে পেটাতে শুরু করে। এসময় আমি ঠেকাতে গেলে তারা আমাকেও পিটিয়ে আহত করে।

    বাগেরহাট সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক অরুণ কুমার মন্ডল বলেন, আহত মা-মেয়ের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চি‎হ্ন রয়েছে। তাদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

    বাগেরহাট মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) এনায়েত হোসেন বলেন, পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। আহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেয়েছি। আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

    -এলএস

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ২০ টাকার জন্য খুন!

    ২০ মার্চ ২০১৭