• শিরোনাম

    চিরতরে নাক ডাকা সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জাদুকরী কৌশল

    অনলাইন ডেস্ক | বুধবার, ১৫ মার্চ ২০১৭

    চিরতরে নাক ডাকা সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জাদুকরী কৌশল

    নাক ডাকা একটিকঠিন সমস্যা, একটি বিরক্তিকর বিব্রতকর সমস্যা। কিন্তু যিনি নাক ডাকেন, তিনি নিজে না বুঝলেও এটা তার পাশে ঘুমন্ত ব্যক্তিটির জন্য যে কি ধরনের বিরক্তিকর তা শুধু ভুক্তভুগীই জানেন। অনেক সময় পাসের রুমের ব্যক্তির ঘুমও নষ্ট হয়। আপাতদৃষ্টিতে এই সমস্যাটাকে মারাত্নক মনে না হলেও, এটি স্বাস্থ্যের জন্য বেশ ক্ষতিকর। নাক ডাকার এই সমস্যাটি অনেক সময় হৃদরোগের কারণ হয়ে দাঁড়ায় এবং এটিকে হৃদরোগের লক্ষণ হিসেবে ধরা হয়ে থাকে। তাই সময় থাকতে নাক ডাকা নিয়ে সচেতন হওয়া উচিত। রাতারাতি এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব নয়। তবে জীবনযাত্রার কিছু পরিবর্তন এবং কিছু কাজ এই সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে। তাই নাক ডাকা সমস্যাকে অবহেলা না করে ঘরোয়া খুব সহজ উপায়ে এই সমস্যার সমাধান করে নিন। জানতে চান কীভাবে? চলুন তবে শিখে নেয়া যাক।

    গাজর , আপেলের জুস –

    শুনতে সাধারণ মনে হলেও এই জুসের রয়েছে শ্বাসনালী কিছুটা চওড়া ও শ্বাসনালীর মিউকাস দ্রুত নিঃসরণের ক্ষমতা যা নাক ডাকা থেকে মুক্তি দিতে বেশ কার্যকর।
    – ২ টি আপেল ছোটো ছোটো খণ্ডে কেটে নিন এবং ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করুন।
    – এবার ২ টি গাজর কেটে ব্লেন্ডারে দিয়ে ব্লেন্ড করে নিন।
    – এরপর একটি লেবুর ১/৪ অংশ কেটে রস চিপে এতে দিয়ে দিন এবং ১ চা চামচ আদা কুচি দিয়ে ব্লেন্ড করে নিন।
    – কিছুটা পানি দিয়ে বেশ ভালো করে ব্লেন্ড করে নিয়ে ছেঁকে নিন।
    – এই পানীয়টি প্রতিদিন পান করুন। নাক ডাকার সমস্যা দূরে পালাবে।

    হলুদের চা –

    হলুদ প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক। এটিও বেশ কার্যকর নাক ডাকা সমস্যার সমাধানে ।
    – ২ কাপ পরিমাণ পানি চুলায় বসিয়ে জ্বাল দিতে থাকুন।
    – এতে ১ চা চামচ পরিমাণ কাঁচা হলুদ বাটা দিয়ে দিন (গুঁড়ো হলেও চলবে)। এবার আবার জ্বাল করতে থাকুন।
    – যখন পানি ফুটে ১ কাপ পরিমাণে চলে আসবে তখন তা নামিয়ে ছেঁকে ফেলুন।
    – এবার ১/২ চা চামচ মধু ও ২/৩ ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে পান করুন।
    – প্রতিদিন ঘুমুতে যাওয়ার ৩০ মিনিট আগে পান করে নেবেন। দেখবেন নাক ডাকার সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

    অলিভ অয়েল

    অলিভে অয়েলের অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি উপাদান রেসপিরাটরির টিস্যু ক্লিয়ার করে বাতাস চলাচল সহজ করে। ঘুমাতে যাওয়ার আগে দুই বা তিন চামচ অলিভ অয়েল পান করুন। এছাড়া আধা চা চামচ অলিভ অয়েল এবং মধু মিশিয়ে প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পান করুন।

    পিপারমেন্ট

    এক গ্লাস পানিতে এক বা দুই ফোঁটা পিপারমেন্ট অয়েল মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি দিয়ে কুলকুচি করুন কিছুক্ষণ। এটি রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে করুন। এটি প্রতিদিন করুন। নাক বন্ধ থাকার কারণে নাক ডাকা সমস্যা দেখা দিলে গরম পানিতে কয়েক ফোঁটা পিপারমেন্ট অয়েল দিয়ে দিন। এটি দিয়ে শ্বাস গ্রহণ করুন। নাকের দুই পাশে পিপারমেন্ট অয়েল ম্যাসাজ করতে পারেন।

    এলাচ

    এলাচের থাকা উপাদান বন্ধ নাক খুলে দিয়ে বাতাস চলাচল সহজ করে দেয়। আধা চা চামচ এলাচ গুঁড়ো এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে মিশিয়ে নিন। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার ৩০ মিনিট আগে এটি পান করুন। এটি প্রতিদিন পান করুন।

    হলুদ

    হলুদের অ্যান্টিসেপটিক এবং অ্যান্টিবায়োটিক উপাদান ইনফ্লামেশন দূর করে দেয়। দুধের সাথে হলুদ মিশিয়ে পান করুন। এই পানীয়টি নাক ডাকা কমানোর সাথে সাথে ভাল ঘুমের সাহায্য করে। এক গ্লাস কুসুম গরম দুধের সাথে দুই চা চামচ হলুদের গুঁড়ো একসাথে মিশিয়ে নিন। এটি ঘুমাতে যাওয়ার ৩০ মিনিট আগে পান করুন। এটি প্রতিদিন পান করুন।

    রসুন

    এক গ্লাস পানিতে এক বা দুই চামচ রসুন কুচি মিশিয়ে নিন। এটি প্রতিদিন ঘুমাতে যাওয়ার আগে পান করুন। এছাড়া রাতের খাবারে রসুন রাখতে পারেন।

    মধু

    এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে এক টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে নিন। এটি প্রতিদিন রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পান করুন। এছাড়া মধু দিয়ে চা তৈরি করে সেটি পান করতে পারেন।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত